Wednesday, August 21, 2019 5:31 pm
Spread the love

ভারতের রাজধানী দিল্লির একটি জনবহুল এলাকায় হোটেলে আগুন লেগে অন্তত ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতদের মধ্যে এক নারী ও একটি শিশুও রয়েছে।

নিহতরা আগুনের গ্রাস থেকে বাঁচতে হোটেলের জানালা থেকে ঝাঁপ দিয়েছিলেন বলে পুলিশ জানাচ্ছে। আরও বেশ কয়েকজন জানালা আর হোটেলের ছাদ থেকে ঝাঁপ দিয়ে প্রাণে বেঁচেছেন।

তবে দিল্লি সরকারের মন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন বলছেন, বেশির ভাগ মৃত্যুই হয়েছে দমবন্ধ হয়ে।

জানা যাচ্ছে, পর্যটকরা যে এলাকার হোটেলে থাকতে পছন্দ করেন, সেরকমই একটি এলাকা, কারোল বাগের ‘হোটেল অর্পিত প্যালেস’এ আজ ভোর রাতে আগুন লাগে।

দমকল অধিকর্তা জি সি মিশ্র সংবাদ মাধ্য কে জানিয়েছেন, ভোর সাড়ে চারটের দিকে তাদের কাছে আগুন লাগার খবর আসে। চারতলায় প্রথমে আগুন লেগেছিল, পরে তা তিনতলা আর দোতলাতে ছড়িয়ে পড়ে।

২০টি দমকল গাড়ি কয়েক ঘন্টার চেষ্টার পরে আগুনি নিয়ন্ত্রণে আনতে পেরেছে বলে জানা গেছে।

দমকল কর্মীরা হোটেল থেকে ৩৫ জনকে উদ্ধার করতে পেরেছেন।

আগুন লাগার সময়ে হোটেলের ৪০ টি ঘরে ৬০ জন আবাসিক ছিলেন, যাদের বেশিরভাগই তখন ঘুমিয়ে ছিলেন বলে দমকল কর্মকর্তারা জানাচ্ছেন।

দমকল কর্মীরা হোটেল থেকে ৩৫ জনকে উদ্ধার করতে পেরেছেনদমকল কর্মীরা হোটেল থেকে ৩৫ জনকে উদ্ধার করতে পেরেছেন।

হোটেলের করিডোরগুলিতে কাঠের প্যানেলিং থাকায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে, আর আবাসিকরাও করিডোর ধরে বেরিয়ে আসতে পারেন নি।

কয়েকজন জানালা আর ছাদ থেকে ঝাঁপ দেন।

এখন হোটেলটিতে আরও কেউ আটকিয়ে রয়েছেন কী-না, তা জানতে তল্লাশী চালানো হচ্ছে।

কারোল বাগ এলাকাটি এমনিতেই জনবহুল।

সেখানে বেশ কয়েকটি বড় বাজার যেমন আছে, তেমনই রয়েছে প্রচুর হোটেল, বসতবাড়ি আর দোকান।

এদিকে কীভাবে আগুন লাগল – তা নিশ্চিত করে বলা না গেলেও দমকল বাহিনীর সন্দেহ বিদ্যুতের লাইনে শর্ট সার্কিট হয়েই আগুন লাগে।

কিন্তু মন্ত্রী মি. জৈন বলেছেন, হোটেলটির চারতলা নির্মাণের অনুমতি ছিল কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে মালিকরা আরও দুটি তলা বেআইনীভাবে নির্মাণ করেছিল।

এই ঘটনায় ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্ত শুরু করার নির্দেশ দিয়েছে সরকার।


Spread the love

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন