Saturday, April 20, 2019 10:16 pm
Spread the love

নড়াইল- পাগল চাদ ঠাকুরের মেলায় মঙ্গলবার নানা বয়সী নারী-পুরুষের ঢল নামে। দুপুরে মেলা প্রাঙ্গণে দর্শনার্থীদের সমাগমে তিল ধারনের ঠাঁই ছিল না। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে জনসমাগমও বাড়তে থাকে। সদর উপজেলার মুলিয়া ইউনিয়নের হিজলডাঙ্গায় দু’দিনব্যাপী পাগল চাদ ঠাকুরের মেলা সোমবার (১৪ জানুয়ারি) সকাল থেকে শুরু হয়েছে। মেলা চলবে আজ মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত।মেলাকে ঘিরে হিজলডাঙ্গা এখন শিশু-মহিলাসহ নানাবয়সী মানুষের পদচারণায় মুখরিত।
মুলিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে বসবাসরত মানুষের আত্মীয়-স্বজন মেলা দেখতে দূর-দূরান্ত থেকে আসা শুরু করেছেন।এ এলাকার অনেকের কর্মস্থল দূরে হলেও মেলা দেখতে ছুটি নিয়ে বাড়িতে এসেছেন।মুলিয়া গ্রামের স্কুল শিক্ষিকা সঞ্চিতা বিশ^াস জানান, পাগল চাদ ঠাকুরের মেলা আমাদের এলাকার পুরনো ঐতিহ্য। তিনি জানান, শত বছরের ঐতিহ্যের ধারক এ মেলা প্রতিবছর বাংলা পৌষ মাসের শেষ দিন শুরু হয়ে চলে পরেরদিন রাত পর্যন্ত।
মেলা কমিটির সেক্রেটারি স্বপন কুমার রায় বলেন, শতবছর আগে থেকে এ মেলার সূচনা হয়। পরবর্তীতে এসে মেলার কলেবর বৃদ্ধি পেয়েছে। আধ্যাত্মিক সাধক পাগল চাদ ঠাকুর ওরফে ল্যাংটা পাগলের স্মরণে অনুষ্ঠিত প্রতিবছর এই মেলায় দূরদূরান্ত থেকে ভক্তবৃন্দ ও পূর্ণাথীরা এসে থাকেন।প্রতি বছরের ন্যায় এবারও দু’দিনব্যাপী মেলায় নারী-পুরুষ ও শিশুসহ বিভিন্ন বয়েসী প্রায় ৫০ হাজার লোকের সমাগম ঘটেছে বলে তিনি জানান।
মেলা উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ^াস।মেলা কমিটির সভাপতি কিশোর কুমার বিশ^াসের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মুলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান রবীন্দ্র নাথ অধিকারী।
মেলা প্রাঙ্গণে গ্রামীণ কুঠির শিল্পসহ বিভিন্ন পণ্যের কমপক্ষে ৫শ’ স্টল বসেছে।


Spread the love

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন