Thursday, January 24, 2019 10:06 am
Spread the love

বাংলাদেশের পোশাক শ্রমিকেরা ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়নসহ বিভিন্ন দাবিতে টানা তৃতীয় দিনের মতো আজও (মঙ্গলবার) সড়কে নেমে বিক্ষোভ করছে এবং পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে। শ্রমিকেরা বলছেন, সরকার ঘোষিত নতুন মজুরি ডিসেম্বর থেকে কার্যকর করার থাকলেও অনেক কারখানা তা বাস্তবায়ন করেনি মালিকপক্ষ।

সরকারি মজুরি কাঠামোয় নূন্যতম বেতন বৃদ্ধি ও তা কার্যকর করার দাবিতে আজ সকাল সাড়ে আটটা থেকে বিমানবন্দর সড়কের পাশে অবস্থিত নীপা গার্মেন্টস, চৈতি গার্মেন্টস, ফ্লোরা ফ্যাশন, অ্যাপারেলস গার্মেন্টসসহ কয়েকটি গার্মেন্টসের শ্রমিকেরা সড়ক অবরোধের চেষ্টা করে। এতে বাধা দেয় পুলিশ।

এ সময় আশপাশের কয়েকটি গার্মেন্টসের কর্মীরা জসীমউদ্দিনের কাছে রাস্তায় বিক্ষোভ করে। আরেকটি দল আজমপুরে এক হওয়ার চেষ্টা করে।

একপর্যায়ে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা নীপা গার্মেন্টসে আগুন লাগিয়ে দেয়। চৈতি গার্মেন্টসের শ্রমিকদের নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ জলকামান থেকে গরম পানি ছোড়ে।

আজমপুর রেলক্রসিংয়ের কাছে পুলিশের সঙ্গে পোশাক শ্রমিকদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ছুড়েছে।

এছাড়া, আজ সকাল ৯টার পর থেকে মিরপুরের কালশী সড়ক ও সাভারের হেমায়েতপুরে পোশাক শ্রমিকরা সড়কে অবস্থান নিলে পুলিশের সাথে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এদিকে, ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়নের দাবি আজ সাভারের অন্তত ছয়টি স্থানে পোশাক শ্রমিকেরা বিক্ষোভ দেখায়। এসব জায়গার রাস্তায় নেমে আসে ১৫টি কারখানার শ্রমিক। হেমায়েতপুরের বাগবাড়ি, আশুলিয়ার খেজুরটেক, পুকুরপাড়, কাঠগড়া, সাভারের উড়াইল, রাজাবাড়ি এলাকায় বিক্ষোভ হয়। কয়েকটি জায়গায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় শ্রমিকদের।

গত শনিবার থেকে বকেয়া বেতন ও মজুরি বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন করে আসছে শ্রমিকরা। তাদের অভিযোগ, নতুন মজুরি কাঠামো অনুযায়ী ৫১ শতাংশ বেতন বৃদ্ধি শুধু ৭ম গ্রেডের ক্ষেত্রেই দিচ্ছে মালিকরা। সমান বেতন দেওয়া হচ্ছে না, মূল্যায়ন করা হচ্ছে না অভিজ্ঞতা ও দক্ষতাকে।

এর ধারাবিহকতায় গত কয়েকদিন থেকে বিভিন্ন গার্মেন্টসের শত শত শ্রমিক রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করেন। গতকাল সোমবার বিমান বন্দর সড়কে  বিক্ষোভের সময় বাস ভাঙচুর করে আগুন দেওয়ার ঘটনাও ঘটে।

মালিক ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের সঙ্গে জরুরি বৈঠক

এদিকে, তৈরি পোশাক শিল্পের মালিক ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে বসছে সরকার। ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়নের দাবিতে গত চার দিন ঢাকায় পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ, সড়ক অবরোধ, যান বাহনের ক্ষতি সাধারণের পরিপ্রেক্ষিতে এই বৈঠক ডাকা হয়েছে।

আজ বিকেল ৪টায় শ্রম ভবনের সম্মেলন কক্ষে এই বৈঠক হবে। এতে সভাপতিত্ব করবেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান। বৈঠকে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশিও উপস্থিত থাকবেন।

মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, দেশের তৈরি পোশাক কারখানাগুলোর শ্রমিকদের জন্য ঘোষিত নতুন মজুরি কাঠামো বাস্তবায়ন নিয়ে শ্রমিকদের মাঝে কিছু ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে বলে পরিলক্ষিত হচ্ছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধৈর্য ধারণ করে আন্তরিকতার সঙ্গে সহযোগিতা করার জন্য শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

শনিবার থেকে রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে ন্যূনতম মজুরি বাস্তবায়নের দাবিতে বিক্ষোভ করছেন শ্রমিকেরা। গতকাল তাঁরা একটি বাসে আগুনও দিয়েছেন।


Spread the love

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন