Tuesday, November 12, 2019 2:24 am
Spread the love

পার্লামেন্টে অন্যসব দিনের মতই বক্তব্য শুরু করেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন। কিন্তু শুরুটা করেন এভাবে, ‘মি. স্পিকার, আসসালামু আলাইকুম।’

আজ মঙ্গলবার পার্লামেন্টের বিশেষ অধিবেশনে এভাবেই বক্তব্য শুরু করেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী। বার্তা সংস্থা এএফপি ও বাসস এ তথ্য দেয়।

পার্লামেন্টে জেসিন্ডা বলেন, ‘এ হামলাকারীকে আইনের সর্বোচ্চ সাজা ভোগ করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘সে নিউজিল্যান্ডের প্রচলিত আইনে সর্বোচ্চ সাজা পাবে।’

জেসিন্ডা আরো বলেন, ‘তার এই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের পক্ষে সে অনেক কিছু ভাবতে পারে। কিন্তু সে কুখ্যাতি ছাড়া আর কিছুই পায়নি। তার এই জঘন্য কাজের জন্য আমি কখনোই তার নাম উচ্চারণ করব না।’

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সে একজন সন্ত্রাসী। সে একজন চরমপন্থী। তবে আমি যখনই তার ব্যাপারে কথা বলব, তখন তার নাম মুখে আনব না।’

গত শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে নির্বিচারে গুলি করে এক সন্ত্রাসী। ওই হামলায় এই পর্যন্ত ৫০ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ওই ঘটনায় অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক ব্রেন্টন ট্যারেন্ট (২৮) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, ট্যারেন্ট একাই ওই দুই মসজিদে হামলা চালায়।

টেস্ট খেলার জন্য ওই শহরেই ছিল বাংলাদেশের ক্রিকেট দল। ক্রাইস্টচার্চের ওই মসজিদেই জুমার নামাজ আদায়ের কথা ছিল তামিম ও মুশফিকদের। পাঁচ মিনিট দেরি করে পৌঁছানোর কারণে তাঁরা বীভৎস ঘটনা থেকে বেঁচে যান। একজন নারী তাঁদের সাবধান করে দিলে তাঁরা দ্রুত হোটেলে ফিরে যান।


Spread the love

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন