Tuesday, September 24, 2019 2:13 am
Spread the love

 যশোর  : 

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) প্রথম বর্ষের ১২ শিক্ষার্থীকে র‌্যাগ, যৌন নিপীড়ন ও বিকৃত যৌনচারে বাধ্য করার অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় ৯ ছাত্রকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে

মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. আহসান হাবীবের স্বাক্ষর করা এক অফিসে আদেশে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

শিক্ষার্থীদের মধ্যে দুজনকে আজীবন, একজনকে দুই বছর এবং অপর ছয়জনকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। তাদের অপরাধের বিষয়ে কোতয়ালী মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত ও ভুক্তভোগী সবাই যবিপ্রবির পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের বিভিন্ন বর্ষের ছাত্র।

এর আগে র‌্যাগিং, যৌন নিপীড়ন এবং বিকৃত যৌনাচারে বাধ্যকরণের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের গঠিত তদন্ত কমিটি ভুক্তভোগী ১২ জনসহ মোট ৪০ জন শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলে ঘটনার সত্যতা পায়। একইসঙ্গে যাঁরা জড়িত তাদের সঙ্গেও তদন্ত কমিটি কথা বলে। এ ঘটনায় জড়িত ছাত্ররা তদন্ত কমিটির সঙ্গে অসংলগ্ন ও ঔদ্ধ্যত্বপূর্ণ আচরণ করেন এবং এ বিষয়ে তারা যথাযথ অনুতাপ বা দুঃখ প্রকাশ করেনি। একইসঙ্গে প্রক্টর অফিসে অভিযোগ করায় র‌্যাগিংয়ের শিকার ছাত্রদের ভয়-ভীতি দেখিয়ে অভিযোগ প্রত্যাহারে বাধ্য করানো হয়। এ সংক্রান্ত ফোনকলের রেকর্ডও তদন্ত কমিটির হাতে রয়েছে।

আজীবন বহিষ্কৃতরা হলেন- দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মো. অলি উল্লাহ ও মাহমুদুল হাসান। দুই বছরের জন্য বহিষ্কার হয়েছেন চতুর্থ বর্ষের ছাত্র রজিবুল হক রজব। এক বছরের জন্য বহিষ্কৃত হয়েছেন- চতুর্থ বর্ষের ছাত্র মো. আবদুল কাদের, এক বছরের জন্য বহিষ্কৃত হয়েছেন দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আল মুজাহিদ আফ্রিদি, মো. শহিদুল ইসলাম , মো. রোকনুজ্জামান রোকন, অনুপ মালাকার এবং মো. শামীম বিশ্বাস ।

পরোক্ষভাবে জড়িত থাকার অভিযোগে চতুর্থ বর্ষের ছাত্র আবু বক্কর সিদ্দিকী, দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র শতদল পাল  ও ইমরান হোসেনকে চূড়ান্তভাবে সতর্ক করা হয়েছে। শৃঙ্খলা পরিপন্থী কোনো কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকবে না মর্মে আগামী সাত কর্মদিবসের মধ্যে তাদের আইনানুগ অভিভাবক এবং তিনি নিজে ৩০০ টাকার নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে অঙ্গীকার না দিলে ওই তিন ছাত্রকেও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করা হবে।


Spread the love

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন