Monday, August 26, 2019 4:40 am
Spread the love

সৌদি আরব ও ভারতের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বৃদ্ধি পেয়েছে বলে জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভারত সফরে আসা সৌদি আরবের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী আদিল আল জুবায়েরের সঙ্গে বৈঠকে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ভারত পাকিস্তানের চলমান উত্তেজনা নিরসনে সৌদি যুবরাজের ‘বিশেষ বার্তা’ নিয়ে দেশ দুটি সফর করছেন জুবায়ের।

সোমবার সৌদি উপপররাষ্ট্রমন্ত্রীর ৬ ঘণ্টার দিল্লি সফরে পাক-ভারত বিষয় ছাড়াও ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক চুক্তির বিষয়টিও গুরুত্ব পেয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সঙ্গেও আলাদাভাবে বৈঠক করেছেন সৌদি উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম এসপিএ জানিয়েছে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকে সৌদি আরব ও ভারতের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক পর্যালোচনা এবং তা উন্নয়নের ব্যাপারে কথা বলেছেন আদিল আল জুবায়ের।

বিশেষত গত মাসে যুবরাজের ভারত সফরে স্বাক্ষরিত চুক্তিগুলো বাস্তবায়নের ব্যাপারে জোর দেয়া হয় বৈঠকে।

এ দিকে হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, সৌদি উপপররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী মোদি সন্ত্রাসবাদকে ‘বৈশ্বিক শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য সবচেয়ে মারাত্মক হুমকি’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। সন্ত্রাসবাদ দমনে সব দেশকে অবিলম্বে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে হবেও জানান মোদি।

প্রসঙ্গত, সৌদি আরব ও ভারতের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বৃদ্ধি পেয়েছে। গত মাসে যুবরাজের সফরে ভারতে ১০০ বিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগের ঘোষণা দেয় সৌদি।

এ মুহূর্তে সৌদি আরব ভারতের চতুর্থ বৃহত্তম বাণিজ্য অংশীদার এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম তেল সরবরাহকারী দেশ। বর্তমানে ভারতের অপরিশোধিত তেলের ২০ শতাংশ আসে সৌদি আরব থেকে। এ ছাড়া তেলের উৎস হিসেবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইরানকে কোণঠাসা করতে চাইছেন সৌদি যুবরাজ।

ভারতের তেল সরবরাহকারী দেশগুলোর মধ্যে গত বছর সৌদির চেয়ে এক স্তরে এগিয়ে ছিল ইরান। কিন্তু মার্কিন নিষেধাজ্ঞার পর ইসলামিক প্রজাতন্ত্রটির তেল ব্যবসা বড় ধরনের ধাক্কা খেয়েছে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ভারতের মূল অবকাঠামো বিনিয়োগে সৌদি বিনিয়োগকে স্বাগত জানিয়ে আসছেন মোদি।


Spread the love

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন