Monday, September 23, 2019 9:14 pm
Spread the love

আপনার স্মার্টনেসের জন্য আপনার মাকে ধন্যবাদ দেওয়ার বৈজ্ঞানিক কারণ রয়েছে। মায়েরা, এখন থেকে আপনাদের সন্তানের সাফল্যে নিজেদের পিঠ চাপড়ানোর আরো একটি কারণ পাওয়া গেছে! এবং পুরুষেরা, বুদ্ধিমান শিশু পেতে বুদ্ধিমান সঙ্গিনীর খোঁজ করুন! সাইকোলজি স্পটে প্রকাশিত গবেষণা অনুসারে, সাধারণত কোনো শিশুর বুদ্ধিমত্তা আসে সবচেয়ে প্রিয় ব্যক্তি মায়ের কাছ থেকে।

কমন সেন্স ধারণা দিচ্ছে যে, শিশুরা বুদ্ধিমত্তা পেয়ে থাকে মা-বাবা উভয় থেকেই। কিন্তু গবেষণার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, কিছু জিন ভিন্নভাবে আচরণ করে, এটা নির্ভর করছে তারা মা নাকি বাবা থেকে এসেছে তার ওপর ভিত্তি করে। বুদ্ধিমত্তা নির্ণায়ক জিনগুলোর অবস্থান ক্রোমোজোম এক্সে। যেহেতু নারীরা দুটি এক্স ক্রোমোজোম এবং পুরুষেরা শুধু একটি এক্স ক্রোমোজোম বহন করে, তাই শিশুদের মায়ের কাছ থেকে বুদ্ধিমত্তা পাওয়ার সম্ভাবনা দ্বিগুণ। এছাড়া গবেষণার প্রতিবেদনে আরো উল্লেখ করা হয়েছে যে, বাবার কাছ থেকে প্রাপ্ত বুদ্ধিমান জিনগুলো নিষ্ক্রিয় হয়ে যায়।

আপনার এখনো বিশ্বাস হচ্ছে না? তাহলে কয়েক দশক পূর্বের প্রমাণে ফিরে যান। ১৯৯৪ সালে মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিল সোশ্যাল অ্যান্ড পাবলিক হেলথ সায়েন্স ইউনিটের গবেষকরা ১৪ থেকে ২২ বছর বয়সের ১২,৬৮৬ জন লোকের ইন্টারভিউ নেন। ফলাফল? শিশুদের আইকিউ, জাতি, শিক্ষা ও আর্থসামাজিক অবস্থা মূল্যায়নের পর পাওয়া যায় যে, বুদ্ধিমত্তার সর্বোত্তম প্রেডিক্টর ছিল মায়ের আইকিউ।

কেন স্মার্ট মায়েদের শিশুরা স্মার্ট হয়? এর পেছনে বৈজ্ঞানিক হাইপোথিসিস ছাড়াও অন্য একটি যুক্তিসংগত ব্যাখ্যা রয়েছে। যেহেতু মায়েরা প্রায়সময় প্রাথমিক সেবাদাতার ভূমিকায় থাকে, তাই তারা গুরুত্বপূর্ণ মস্তিষ্ক বিকাশের সময়টাতে শিশুদের পরিবেশের প্রাথমিক স্থপতিও, ফোর্বস অনুসারে। গবেষণা বলছে যে, বেশি বয়সের মায়েরা তুলনামূলক ভালো মা।

কিন্তু বাবার ভূমিকাকেও অবহেলা করার কিছু নেই। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, মাত্র ৪০ থেকে ৬০ শতাংশ বুদ্ধিমত্তা বংশগত- অন্যান্য পরিবেশগত ফ্যাক্টরও গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে।

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট


Spread the love

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন