Monday, September 23, 2019 10:04 pm
Spread the love

চাঁদার দাবিতে যশোর রেলস্টেশন সুইপার কলোনিতে বোমা হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। রোববার বিকেলে কলোনির মধ্যে ৩/৪টি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় তারা। এ ঘটনায় একজন আহত হয়েছেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ হামলার প্রতিবাদে সুইপার কলোনির বাসিন্দারা শহরে বিক্ষোভ ও প্রশাসনের কাছে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করেছে।

যশোর শহরের রেলস্টেশন সুইপার কলোনির বাসিন্দারা জানান, রেল স্টেশন এলাকার সন্ত্রাসী ম্যানসেল বাহিনীর জাহিদ, সুমন মেহেদি ও রমজানসহ ৭/৮ জন প্রায়ই তাদের কাছে এসে বলে, ‘তোরা মাদক বিক্রি করিস। সপ্তাহে দশ হাজার টাকা করে দিবি।’ চারদিন আগে তাদের পাড়ার বাসিন্দা সুকুমার শূকর বিক্রি করে ১৪ হাজার টাকা আনেন। সেই টাকা জোর করে ছিনিয়ে নেয় জাহিদ ও মেহেদি। এরপর রোববার বিকেল তিনটার দিকে সন্ত্রাসীরা এসে সাধনের স্ত্রী বাসন্তির কাছে দশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় জাহিদ ও মেহেদিসহ তাদের লোকজন নিয়ে অমেলা নামে আরেকজনকে মারপিট করে। এসময় অন্যরা প্রতিবাদ করলে সন্ত্রসীরা ৩/৪টা বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায়। এর মধ্যে একটি বোমা কলোনির মন্দিরের মধ্যে বিস্ফোরিত হয়। বোমার স্প্রিন্টারে আহত হন বাসন্তি।

এদিকে, হামলার ঘটনার পর সুইপার কলোনির সামনে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন সেখানকার বাসিন্দারা। তারা সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। এরপর সুইপার কলোনির সদস্যরা শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে গিয়েও হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে তারা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হুসাইন শওকতের কাছে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বিচার দাবি করেন।

যশোর কোতোয়ালি থানা পুলিশের ওসি অপূর্ব হাসান জানিয়েছেন, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করেছে। জড়িতদের আটকের জন্য পুলিশের অভিযানে চলছে।


Spread the love

এই নিউজ পোর্টালের কোনো লেখা কিংবা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি

আরও পড়ুন